- Advertisement -

বিএনপিসহ সবাইকে নির্বাচনে আসার আহ্বান আ.লীগের

বিএনপিসহ সব দলকে নির্বাচনে আসার আহ্বান জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বিএনপি মত পরিবর্তন করে নির্বাচনে এলে স্বাগত জানানো হবে বলেও জানান তিনি। বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে কাদের এ কথা জানান। ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা সবাইকে নিয়ে নির্বাচন করতে চাই। কারও জন্য নির্বাচনের দরজা বন্ধ হয়নি। একা নির্বাচন করতে চাই না, সবাইকে নিয়ে ক্ষমতায় যেতে চাই।   তিনি বলেন, যারা নির্বাচনে আসতে চায় তাদের জন্য নির্বাচনের দরজা খোলা আছে। কাউকে নির্বাচনে নিরুৎসাহিত করবো না। বিএনপি যদি মত পরিবর্তন করে নির্বাচনে আসে তাহলে স্বাগত জানাই।  গণতন্ত্র ছাড়া ষড়যন্ত্রের পথে আওয়ামী লীগের রাষ্ট্র ক্ষমতার ইতিহাস নেই উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে গণতন্ত্রের মুকুটও ছিনতাই হয়ে গেল। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে কারাগারে জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করে জাতি নেতৃত্ব শূন্য করার ষড়যন্ত্র করা হয়। আওয়ামী লীগ ২১ বছর ক্ষমতায় ছিল না, তখন এই ২১ বছর গণতন্ত্র ছিনতাই হয়ে গেছে। এই ২১ বছর আওয়ামী লীগকে গণতন্ত্র চর্চা করতে দেয়নি। জিয়াউর রহমান ও এরশাদ। তারপর খালেদাও একই কায়দায় স্বৈরাচারী গণতন্ত্র কায়েম করেছিল। ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, এখন সংলাপ করার কথা বলেন। ২০১৮ সালে সংলাপের জন্য আহ্বান করা হয়েছে। বহুদল গেলেও বিএনপি তাতে সাড়া দেয়নি। শেখ হাসিনা ব্যক্তিগতভাবে খালেদা জিয়াকে সংলাপে আমন্ত্রণ করেছিলেন। আমাদের দোষ কোথায়, অপরাধ কোথায়? তিনি বলেন, বিএনপি বলেছিল- আওয়ামী লীগ অলিগলি খুঁজে পাবে না। কিন্তু ২৮ তারিখে দেখলাম বিএনপি অলিগলি দিয়ে পালিয়ে গেল। বিএনপির এখন আর নেতা নেই, আছে শুধু আবাসিক প্রতিনিধি। নেত্রীকে বলেছিলাম। তিনি বলেছেন- একজন বাইরে থাক, তাকে ধরার দরকার নেই। তাকে ধরার জন্য সরকার জোর কোনো চেষ্টা করেনি। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, কাজী জাফরুল্লাহ চৌধুরী, কামরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর কবির নানক, ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মির্জা আজম, আফজাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী ও ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published.

প্রতিনিয়ত সি এন এন ঢাকার সর্বশেষ খবর মোবাইলে নোটিফিকেশন পেতে.. হ্যা বিস্তারিত