- Advertisement -

মানবতাবিরোধী অপরাধে শামসুলের ১০ বছরের কারাদণ্ড

ঢাকা: মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামালপুরের শামসুল হককে (বদর ভাই) আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেওয়া আমৃত্যু কারাদণ্ডাদেশ কমিয়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে করা শামসুল হকের আপিল খারিজ করে প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে আপিল বেঞ্চ মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) এ রায় দেন।

 

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল এম সাইফুল আলম। শামসুল হকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এস এম শাহজাহান ও এহসান এ সিদ্দিক।

গত ১৮ অক্টোবর এ মামলায় শামসুলের আপিলের ওপর শুনানি শেষ হয়।

এর আগে গত ১২ জুলাই তার আপিলের ওপর শুনানি শুরু হয়েছিল।

এ মামলায় ২০১৬ সালের ১৮ জুলাই রায় দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। রায়ে তিন আসামিকে মৃত্যুদণ্ড ও পাঁচ আসামিকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেওয়া হয়। পরে আইন অনুসারে এক মাসের মধ্যে আপিল করেন শামসুল হক।

আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা, গণহত্যা, আটক, অপহরণ, নির্যাতন, লুটপাট ও মরদেহ গুমের পাঁচটি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়। এসব অভিযোগের মধ্যে ১ ও ৫ নম্বর বাদে বাকি তিনটি প্রমাণিত হওয়ায় এ সাজা দেন ট্রাইব্যুনাল।

আসামিদের মধ্যে আশরাফ হোসেন, আব্দুল মান্নান ও আব্দুল বারী ২ নম্বর অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড ছাড়া অন্য দুই অভিযোগে (৩ ও ৪ নম্বর) দুবার করে আমৃত্যু কারাদণ্ড পান। শরীফ হোসেন তিনটি অভিযোগে এবং মো. আবুল হাশেম, শামসুল হক ও এস এম ইউসুফ আলী একটিতে (তিন নম্বর) ও মো. হারুন একটিতে (দুই নম্বর) আমৃত্যু কারাদণ্ড পান।

মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published.

প্রতিনিয়ত সি এন এন ঢাকার সর্বশেষ খবর মোবাইলে নোটিফিকেশন পেতে.. হ্যা বিস্তারিত