- Advertisement -

ফাহিমের গোলে বাংলাদেশের লিড

দ্বিতীয়ার্ধের দ্বিতীয় মিনিটে ম্যাচে আবারও লীড নিল বাংলাদেশ। প্রথম লেগে কয়েকটি সুযোগ মিস করা ফয়সাল আহমেদ ফাহিম এবার দ্বিতীয় লেগে গোলের দেখা পেয়েছেন৷ ৪৬ মিনিটে সংঘবদ্ধ এক আক্রমণে বাংলাদেশ গোল পায়। সাদ উদ্দিনের কোনাকুনি শট মালদ্বীপের গোলরক্ষক আংশিক সেভ করেন। সোহেল রানা ফিরতি বলে ফয়সাল আহমেদ ফাহিমকে বল বাড়ান। ফাহিম বল জালে পাঠাতে ভুল করেননি।

এর আগে ম্যাচের শুরুটা ছিল মালদ্বীপের আক্রমণ দিয়ে। দুই মিনিটের মধ্যেই দু’টি কর্নার আদায় করে মালদ্বীপ। প্রথম কয়েক মিনিট মালদ্বীপ প্রাধান্য বিস্তার করলেও ১১ মিনিটে ম্যাচে লিড নেয় বাংলাদেশ। ম্যাচের দশম মিনিটে সাদ উদ্দিনের বাড়ানো বলে ফাহিম দৌড়ে গিয়ে বক্সের শেষ প্রান্তে বল রিসিভ করেন। বল রিসিভ করেই রাকিবের উদ্দেশ্যে দ্রুতগতির কাটব্যাক করেন। ফরোয়ার্ড রাকিব হোসেন দুর্দান্ত প্লেসিংয়ে গোল করলে কিংস অ্যারেনা উল্লাসে ফেটে পড়ে।

প্রথম গোলের মিনিট তিনেক পরেই বাংলাদেশ আরেকটি সুযোগ পেয়েছিল। ডান প্রান্ত থেকে অধিনায়ক জামাল ভূইয়া বক্সের সামনে বল ফেলেন। সতীর্থ ফরোয়ার্ড বলটি রিসিভ করলেও পোস্টে রাখতে পারেননি। অধিনায়ক জামাল ভূইয়া আজকের ম্যাচের প্রথমার্ধে দারুণ খেলেছেন। বিশেষ করে তার বাড়ানো দুই বলে গোলের দারুণ সুযোগ তৈরি হয়েছিল।

গোলদাতা রাকিব হোসেন গোলরক্ষককে একবার ১:১ এ পেয়েও বল পোস্টে রাখতে পারেননি। বাংলাদেশ ব্যবধান দ্বিগুণ করতে ব্যর্থ হলেও মালদ্বীপ সমতা আনতে ভুল করেনি। ৩৬ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে হাজমার কর্ণার ফাহিম হেডে ক্লিয়ার করতে পারেননি। বল আইসাম ইব্রাহিমের মাথায় পড়লে ঠান্ডা মাথায় বল জালে পাঠান। কিংস অ্যারেনার গ্যালারী নিস্তব্ধ হয়ে পড়ে।

গোল হজমের পরও বাংলাদেশ দমে যায়নি। প্রথমার্ধের বাকি সময় গোল করার সর্বাত্মক চেষ্টা করেছে। যদিও ফিনিশিং ব্যর্থতায় গোল সংখ্যা আর বাড়েনি।

মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published.

প্রতিনিয়ত সি এন এন ঢাকার সর্বশেষ খবর মোবাইলে নোটিফিকেশন পেতে.. হ্যা বিস্তারিত