- Advertisement -

বাড়ল যুক্তরাজ্যের ভিসা ফি

সম্প্রতি ভিসা ফি বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিল যুক্তরাজ্য; আজ ৪ অক্টোবর থেকে তা কার্যকর হচ্ছে। বুধবার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, এখন থেকে এই বর্ধিত ফি শিক্ষার্থী, শ্রমিক, পর্যটক— সবার ওপর কার্যকর হবে।

মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, এখন থেকে ৬ মাসের ভিসার জন্য পর্যটক ও কর্মীদের ফি বাবদ ব্যয় করতে হবে ১১৫ পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৫ হাজার ৩৮৩ টাকা) এবং শিক্ষার্থীদের ভিসা ফি বাবদ ব্যয় করতে হবে ৪৯০ পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৬৫ হাজার ৫৪৮ টাকা)।

অর্থাৎ, পূর্বের তুলনায় পর্যটক ও কর্মীদের ৬ মাসের ভিসা ফি বাড়ানো হয়েছে ১৫ পাউন্ড এবং শিক্ষার্থীদের ভিসা ফি বাড়ানো হয়েছে ১২৭ পাউন্ড। শতাংশ হিসেবে পরিবার, বসবাস এবং নাগরিকত্ব ভিসার খরচ ২০ শতাংশ বৃদ্ধি পাচ্ছে, কাজের এবং ভ্রমণ ভিসার খরচ বৃদ্ধি পাবে ১৫ শতাংশ।

পর্যটক ও শ্রমিকদের ২, ৫ ও ১০ বছরের ভিসার ফি ও বাড়ানো হয়েছে। বর্ধিত মূল্যের মানদণ্ড হিসেবে এক্ষেত্রে বিবেচনা করা হয়েছে ৬ মাসের বর্তমান ফি’কে।

ওয়েবসাইটের তথ্য অনুসারে, যেসব ব্যক্তি কাজ ও পড়াশোনার কারণে দীর্ঘমেয়াদী ভিসার আবেদন করতে ইচ্ছুক, তাদের ওপরই কার্যকর হবে এই বর্ধিত ফি। এর বাইরে যারা স্বল্পমেয়াদে কিংবা অনির্দিষ্টকালের জন্য ভিসার আবেদন করবেন, তাদের ওপর এই ফি প্রযোজ্য হবে না।

তেমনি চিকিৎসা ভিসা, স্বল্পমেয়াদি কোর্সের জন্য ভিসা এবং সার্টিফায়েড স্পনসরশিপ রয়েছে— এমন শিক্ষার্থী এবং বিশ্বের অন্যান্য দেশে বসাবাসরত ব্রিটিশ নাগরিকদের ওপরও বর্ধিত ভিসা ফি কার্যকর হবে না।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের এক মুখপাত্র এ সম্পর্কে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিকে বলেন, ‘সরকারের জনপরিষেবা সংক্রান্ত বিভিন্ন খাতে অর্থায়ন বাড়াতে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে এবং আমরা মনে করি এটি একটি সময়োপযোগী পদক্ষেপ। কারণ, ব্রিটেনে যাওয়ার পর স্বাভাবিকভাবেই আপনি উন্নত জনপরিষেবা চাইবেন। সেই পরিষেবা সরবরাহের জন্যই বর্ধিত এই অর্থ নেওয়া হচ্ছে।’

মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published.

প্রতিনিয়ত সি এন এন ঢাকার সর্বশেষ খবর মোবাইলে নোটিফিকেশন পেতে.. হ্যা বিস্তারিত