- Advertisement -

অন্তিম অবস্থায় সরকার:রিজভী

প্রধানমন্ত্রীর সব শেষ হয়ে গেছে, অন্তিম অবস্থায় তার সরকার বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন,’প্রধানমন্ত্রীর কিছু করার নাই।প্রধানমন্ত্রীর সব শেষ হয়ে গেছে।অন্তিম অবস্থায় তার সরকার।তাই এখন তিনি কি হয়েছেন জানেন?উনি প্রধানমন্ত্রী এখন হয়েছেন পুষ্টি বিজ্ঞানী।উনি বলেছেন ডিম সিদ্ধ করে ফ্রিজে রাখতে,উনি কাঁচামরিচ শুকিয়ে ফ্রিজে রেখে পড়ে খেতে বলেছেন উনি মাংসের বার্গার খেতে নিষেধ করেছেন উনি বলেছেন কাঠালের বার্গার খেতে,বলেছেন না?উনি কি বলেছেন বেগুনের বেগুনি খাবেন না মিষ্টি কুমড়ার বেগুনি খাবেন।তাহলে সব পাশ করা পুষ্টিবিজ্ঞানী সবাই এখন রিটায়ার্ডে চলে গেছেন।শেখ হাসিনা পুষ্টিবিজ্ঞানী হয়েছেন।কারণ উনার কোন বৈধতা নাই তাই আবোল তাবোল তিনি মেনু দিচ্ছেন খাওয়ার জন্য।সব শেষ করেছেন তিনি।

শুক্রবার(১ সেপ্টেম্বর)নয়াপল্টনে বিএনপির ৪৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে র্যালী পূর্বে সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন,’এই সরকার ক্রসফায়ারের মাধ্যমে জনির মত আমাদের অনেক তরুণ নেতাকর্মীদেরকে হত্যা করেছে।ব্যাংক লুট করেছে,রিজার্ভ চুরি করেছে কোনটাই বাদ রাখে নাই,ছাত্রলীগ যুবলীগ সব অপকর্মই করেছে।শুধু তাই না মহিলা লীগের একজন নেত্রী মানিকগঞ্জে গরু চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়েছে।আপনারা শোনেন নাই?

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন,’
এই অবৈধ প্রধানমন্ত্রীর আওয়ামী লীগ সরকার এখন আইসিইউতে চলে গেছে।তাই তারা এখন উল্টাপাল্টা বলতে গিয়ে ডক্টর ইউনুসের মত যিনি আন্তর্জাতিকভাবে সম্মান বয়ে নিয়ে এসেছেন যিনি বাংলাদেশকে বর্হির বিশ্বে উজ্জ্বল করেছেন তার বিরুদ্ধে তারা এখন চুরির মামলা দিচ্ছেন।সরকারের আশপাশের সব মন্ত্রী-এমপিরা সবাই চোর গরু চুরি থেকে শুরু করে তেল চুরি,ব্যাংক চুরি লাখ লাখ কোটি টাকা চুরি প্রত্যেকটি জায়গায় চোরে ভর্তি আওয়ামী লীগ।

রিজভী বলেন,’৪৫ বছর পার করেছে বিএনপি।সরকারের এত নির্যাতন এত অত্যাচার সহ্য করেও আজকের একদিনের ঘোষণায় যে জনতার ঢেউ নেমেছে এগুলো অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেখবেন।এই ঢল অব্যাহত আছে।আজকে ছাত্রলীগের একটি সমাবেশ আছে সারা দেশ থেকে কোটি কোটি টাকা খরচ করে আপনি(প্রধানমন্ত্রী) লোক এনেছেন।

নেতাকর্মীদের আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন,’আমাদেরকে গণতন্ত্র ফিরে আনতে হবে এই গণতন্ত্র ফিরে আনতে আমাদের হয়তো অনেক মূল্য দিতে হবে। এই মূল্য ত্যাগ স্বীকার করেই আমাদের চূড়ান্ত লক্ষ্য,আমাদের চূড়ান্ত আঘাত এই অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে আনতে হবে।এই প্রত্যয় নিয়েই আপনারা বাড়ি ফিরে যাবেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহবায়ক আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ডঃ আব্দুল মঈন খান,নজরুল ইসলাম খান,ভাইস চেয়ারান আব্দুল আউয়াল মিন্টু,শামসুজ্জামান দুদু,
চেয়ারপারসন এর উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান,জহুরুল হক শাহজাদা মিয়া,বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ,যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহসান,ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published.

প্রতিনিয়ত সি এন এন ঢাকার সর্বশেষ খবর মোবাইলে নোটিফিকেশন পেতে.. হ্যা বিস্তারিত